1. mahadihasaninc@gmail.com : admin :
  2. hossenmuktar26@gmail.com : Muktar hammed : Muktar hammed
নৌকার জয় হলে রাজশাহী হবে স্মার্ট নগরী, বাড়বে কর্মসংস্থান: বাদশা - dailybanglarpotro
  • June 12, 2024, 2:50 pm

শিরোনামঃ
রাজশাহী নগরীতে ৪ নারীসহ ৮ ভুয়া সাংবাদিক গ্রেফতার রাজশাহী সিটি প্রেসক্লাবের নয়া কমিটির দায়িত্ব গ্রহন মহানগর ছাত্রলীগের বন ও পরিবেশ বিষয়ক সম্পাদক জান্নাতুল ফেরদৌস পিয়ার উদ্যোগে বিশ্ব পরিবেশ দিবসে বৃক্ষরোপণ কর্মসূচি পালিত প্রকৃতি ও পরিবেশ সুরক্ষায় ‘গ্রিন কোয়ালিশন’ গঠন দুর্গাপুরে আলিপুর মক্কা আল-মদিনা ডায়াগনস্টিক সেন্টার উদ্বোধন চারঘাট উপজেলা পরিষদ নির্বাচনে চেয়ারম্যান প্রার্থী আলহাজ্ব ফখরুল ইসলাম আনারস প্রতীকে বিজয়ের দ্বারপ্রান্তে  পঞ্চগড়ে বঞ্চিত শিশুদের আনন্দ দিতে শিশুস্বর্গের নানা আয়োজন গৌরনদী উপজেলা চেয়ারম্যান প্রার্থীর অন্তরঙ্গ ভিডিও ভাইরাল যমুনা লাইফের সাফল্যের কারিগর কামরুল হাসান খন্দকারের নেতৃত্বের ৫ বছর দুর্গাপুর উপজেলার দুটি কেন্দ্রে সংঘর্ষ; গুরুত্বর আহত ১২

নৌকার জয় হলে রাজশাহী হবে স্মার্ট নগরী, বাড়বে কর্মসংস্থান: বাদশা

  • Update Time : Thursday, December 28, 2023
  • 51 Time View

নিউজ ডেস্ক:আগামী জাতীয় সংসদ নির্বাচনে রাজশাহী-২ আসনে নৌকা প্রতীকের জয় হলে আগামীর রাজশাহীকে স্মার্ট নগরী হিসেবে গড়ে তোলার অঙ্গীকার করেছেন শেখ হাসিনার মনোনীত নৌকার প্রার্থী ফজলে হোসেন বাদশা। একইসঙ্গে চলমান উন্নয়ন কার্যক্রমের পাশাপাশি বন্ধ কারখানা চালুসহ বিভিন্নভাবে রাজশাহীতে কর্মসংস্থান গড়ে তোলার কথাও জানিয়েছেন তিনি।

বৃহস্পতিবার বিকালে শহরের উপশহর নিউ মার্কেট থেকে শুরু করে তেরখাদিয়া হয়ে ডাবতলা মোড় পর্যন্ত নির্বাচনি প্রচারণা ও গণসংযোগকালে সাংবাদিকের প্রশ্নের জবাবে তিনি এসব কথা জানান।

ফজলে হোসেন বাদশা বলেন, জননেত্রী শেখ হাসিনার আন্তরিক সহযোগিতায় রাজশাহী আজকে দৃশ্যমান উন্নয়নের নগরীতে পরিণত হয়েছে। তার কাছে রাজশাহীবাসীর জন্য যখনই যা চাওয়া হয়েছে; তিনি তাই দিয়েছেন। এখন আমাদের দেয়ার পালা। তিনি আমার হাতে নৌকা প্রতীক তুলে দিয়ে তার পক্ষ থেকে আপনাদের কাছে পাঠিয়েছেন। আপনারা যদি আবারও জননেত্রী শেখ হাসিনার ওপর আস্থা রাখেন, তবে আগামী দিনের রাজশাহী হবে স্মার্ট নগরী।

রাজশাহীতে কর্মসংস্থান সৃষ্টির ওপর গুরুত্বারোপ করে টানা তিনবারের এই সংসদ সদস্য বলেন, বর্তমান সরকারের ধারাবাহিকতায় রাজশাহীর অনেক সমস্যা সমাধান হলেও কর্মসংস্থানের সমস্যা কিছুটা আছে। এটি অস্বীকারের কোন সুযোগ নেই। আমি সংসদ সদস্য নির্বাচিত হওয়ার পর রাজশাহীর বন্ধ কলকারখানাগুলো চালু করার ব্যাপারে সর্বোচ্চ প্রচেষ্টা চালিয়েছি। কিছু কাজ হয়েছে, কিছুটা বাকি। যে কাজগুলো বাকি আছে, সেগুলো বাস্তবায়নের মধ্য দিয়ে এখানে কর্মসংস্থান গড়ে তোলার ব্যাপারে অবশ্যই কাজ করা হবে। একইসঙ্গে আমাদের শহরের তরুণ-তরুণীদের জন্য প্রযুক্তিগত কর্মসংস্থান গড়ে তোলার ব্যাপারেও উদ্যোগ নেয়া হবে।

সকল শিক্ষা প্রতিষ্ঠানে নিজের উন্নয়ন কর্মকাণ্ড তুলে ধরে শিক্ষা মন্ত্রণালয় সম্পর্কিত সংসদীয় স্থায়ী কমিটির এই সদস্য বলেন, জনপ্রতিনিধি নির্বাচিত হওয়ার পর আমি সবচেয়ে বেশি গুরুত্ব দিয়েছি শিক্ষার ওপর। কারণ আমি উপলব্ধি করেছি, আমাদের ছেলে-মেয়েরা যদি সুশিক্ষায় শিক্ষিত হতে না পারে; তাহলে আমাদের কোনো কার্যক্রমই কাজে আসবে না। আপনারা শহরের চারিদিকে তাকিয়ে দেখেন; কোন শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানই উন্নয়নের বাইরে নেই। প্রতিটি স্কুল-কলেজে নতুন ভবন হয়েছে। মাদ্রাসাগুলোও বাদ পড়েনি। কাগজে কলমে যে শিক্ষা নগরী ছিল, তা আজকে দৃশ্যমান। এসব কিছু করতে পেরেছি, একমাত্র জননেত্রী শেখ হাসিনার কারণে। তাই তার পক্ষ থেকে আবারও উন্নয়নের প্রতীক নৌকায় ভোট চাই।

গণসংযোগকালে এমপি বাদশার সঙ্গে স্থানীয় রাজনৈতিক নেতৃবৃন্দ, বীর মুক্তিযোদ্ধাগণ, সামাজিক ও পেশাজীবী সংগঠনের নেতৃবৃন্দসহ সাধারণ জনতা উপস্থিত ছিলেন।

Please Share This Post in Your Social Media

More News Of This Category