1. mahadihasaninc@gmail.com : admin :
  2. hossenmuktar26@gmail.com : Muktar hammed : Muktar hammed
কালীগঞ্জ কাশিপুর গ্রামে অর্ধশত নারী প্রবাসীদের সাথে প্রতারণায় লিপ্ত, স্বামীরা জুয়া ও মদের নেশায় বুদ - dailybanglarpotro
  • June 12, 2024, 4:04 pm

শিরোনামঃ
রাজশাহী নগরীতে ৪ নারীসহ ৮ ভুয়া সাংবাদিক গ্রেফতার রাজশাহী সিটি প্রেসক্লাবের নয়া কমিটির দায়িত্ব গ্রহন মহানগর ছাত্রলীগের বন ও পরিবেশ বিষয়ক সম্পাদক জান্নাতুল ফেরদৌস পিয়ার উদ্যোগে বিশ্ব পরিবেশ দিবসে বৃক্ষরোপণ কর্মসূচি পালিত প্রকৃতি ও পরিবেশ সুরক্ষায় ‘গ্রিন কোয়ালিশন’ গঠন দুর্গাপুরে আলিপুর মক্কা আল-মদিনা ডায়াগনস্টিক সেন্টার উদ্বোধন চারঘাট উপজেলা পরিষদ নির্বাচনে চেয়ারম্যান প্রার্থী আলহাজ্ব ফখরুল ইসলাম আনারস প্রতীকে বিজয়ের দ্বারপ্রান্তে  পঞ্চগড়ে বঞ্চিত শিশুদের আনন্দ দিতে শিশুস্বর্গের নানা আয়োজন গৌরনদী উপজেলা চেয়ারম্যান প্রার্থীর অন্তরঙ্গ ভিডিও ভাইরাল যমুনা লাইফের সাফল্যের কারিগর কামরুল হাসান খন্দকারের নেতৃত্বের ৫ বছর দুর্গাপুর উপজেলার দুটি কেন্দ্রে সংঘর্ষ; গুরুত্বর আহত ১২

কালীগঞ্জ কাশিপুর গ্রামে অর্ধশত নারী প্রবাসীদের সাথে প্রতারণায় লিপ্ত, স্বামীরা জুয়া ও মদের নেশায় বুদ

  • Update Time : Wednesday, August 2, 2023
  • 169 Time View

এম. মাসুম আজাদ: জীবন ও জীবিকার তাগিদে মানুষ কতই না পেশাতে নিয়োজিত হয়। কিন্তু পাঠক চিন্তা করে দেখুন তো ঝিনাইদহের একটি গ্রামের প্রায় অর্ধ শতাধিক পরিবারের মহিলারা নিয়োজিত অনলাইনে প্রবাসীদের প্রেমের ফাঁদে ফাঁসিয়ে লক্ষ লক্ষ টাকা হাতিয়ে নেওয়া। আর সেই সকল মহিলাদের স্বামীরা দিন রাত জুয়া ও মদের নেশায় বুদ হয়ে আছে। ভাবছে এটা আবার কিভাবে সম্ভব, তাও আবার ঝিনাইদহে? জ্বী এটাই বাস্তব,ঝিনাইদহের কালীগঞ্জ উপজেলার পৌরসভার ৮ নং ওয়ার্ডের কাশীপুর গ্রামেই ঘটছে নিয়মিত ভাবে এই রকম ঘটনা। এই গ্রামের অনেক পরিবারের মেয়েরা অনলাইনে, ইউটিউবে, ফেসবুক পেইজে প্রবাসীদের উদ্দেশ্যে আবেগময় ভিডিও বানিয়ে ছাড়েন,আর সেই ভিডিও দেখে সুদূর প্রবাসে থাকা বাংলাদেশের হাজার হাজার প্রবাসীর ভাইয়েরা ফাঁদে পা দেন। তার পর থেকেই শুরু হয় বিভিন্ন কৌশলে টাকা হতিয়ে নেবার ধান্দা। সাংবাদিকদের দীর্ঘ অনুসন্ধানে বের হয়ে এসেছে অধিকাংশ মেয়েদের নাম পরিচয়, জানা যায়। কাশিপুরের আদরী- স্বামী, মামুন মিয়া। কাজল পিতা,মৃত জয়নাল মিয়া। শিউলি-স্বামী রাজু মিয়া। বৈশাখি- স্বামী সাজু মিয়া। আসমিনা স্বামী, কবির মিয়া। রুমা স্বামী, বকুল মিয়া শিউলি – স্বামী, সাইদুল মিয়া। মৌসুমি স্বামী, হাসমত। খাদিজা স্বামী-উজ্জ্বল মিয়া। আসরা,পিতা মৃত জালাল। মালনছি- স্বামী হানিফ মিয়া। সুমি -স্বামী কামাল। রুনু বেগম,-স্বামী উজির আলী যাদের আবেগময় ভিডিও ঘুরছে অনলাইনে বিভিন্ন ইউটিউব চ্যানেল ও ফেসবুক পেইজে, যেখানে এই সকল মেয়েদের ফোন নাম্বার দেওয়া থাকে এবং অধিকাংশ মেয়েদের স্বামী সন্তান থাকার পরেও ভিডিওতে তারা বলছেন কেউ স্বামী পরিত্যক্তা বা অবিবাহিত ও দরিদ্র পরিবারে। এদের আবেগময়ী ভিডিও দেখে সুদূর প্রবাসীরা তাদের ফাঁদে পা দিয়ে লক্ষ লক্ষ টাকা হারাচ্ছেন। অনেকে প্রবাস থেকে এসে এখানে যেয়ে পড়ছেন নানান ঝামেলায়। যদিও এই সকল মেয়েরা কিছুদিন আগেও ছিলেন কাশিপুর বেদেপল্লীর বস্তিতে কিন্তু প্রতারণার এই আলাদিনের চেরাগ রাতারাতিই তাদের দালান ও ফ্ল্যাট বাড়িতে উঠিয়েছেন। যদিও তাদের প্রকাশ্য কোনোই উপার্জনের মাধ্যম দেখাতে পারবে না। তাদের মূল পেশা প্রতারণা।

সাংবাদিকদের কাছে প্রায়ই প্রবাসী ভাইয়েরা অভিযোগ করেন, এদের মধ্যে অন্যতম ঝিনাইদহের মালয়েশিয়ান প্রবাসী আজিজুর রহমান সাংবাদিকদের জানান তার নিকট থেকে প্রায় ১০ লক্ষ টাকা হাতিয়ে নিয়েছেন প্রতারক চক্র,অভিযোগ করেন কুয়েত প্রবাসী মিজানুর রহমান, অভিযোগ করেন সৌদি আরব প্রবাসী সাদেক মোল্লা, তাদের একটাই অভিযোগ মোবাইলে প্রেমের সম্পর্ক গড়ে লক্ষ লক্ষ টাকা হাতিয়ে নিয়েছেন অপরিচিত ছদ্মবেশী মেয়েরা। এদের স্বামী ও আত্মীয় স্বজনেরা নিয়মিত কাশিপুর বেদে পল্লীর ভেতরে খেলছেন জুয়া আর মদ গাজার নেশায় বুদ হয়ে থাকছে। প্রতারণা ও প্রকাশ্যে জুয়া খেলা নেশা করার বিষয়টি অত্র এলাকার প্রায় সবাই জানেন, কিন্তু ভয়ে কেউই মুখ খুলতে পারেন না।

সাংবাদিকদের অনুসন্ধানে জানা যায় প্রকাশ্যে জুয়ার আসর চালাচ্ছে : রাসেল, পিতা মৃত খলিল মিয়া, (যার নামে এখনো একটি ধর্ষণ মামলা চলমান)। আমল পিতা সাদেক আলী। ইয়ার আলী পিতা মৃত হুজুর আলী। আলমগীর পিতা মোহাম্মদ আলী। ফিরোজ পিতা মিরজুল। মনি পিতা মৃত ছামেদ আলী এছাড়াও জুয়া খেলার বোর্ডে নিয়মিত থাকেন হাসিন,রাজু, সাজু,সোহেল, হাকিম যারা নিয়মিত জুয়া খেলা ও মদ গাজার নেশায় বুদ হয়ে থাকেন।
কালীগঞ্জ পৌরসভার কাশিপুরের সাধারণ জনগণের অভিযোগ এই সকল অপকর্ম দেখতে দেখতে গ্রামের ভালো মেয়েরাও নষ্ট হয়ে যাচ্ছে, তারা ধীরে ধীরে প্রতারণার পথ বেছে নিচ্ছে। সমাজের মধ্যে প্রকাশ্যে অসামাজিক প্রতারণা ও জুয়া মদের নেশা চলছে হরদম অথচ এই সকল বিষয়ে খোঁজ রাখেন না কালীগঞ্জ প্রশাসন। অনতিবিলম্বে এই সকল প্রতারক মেয়েদের ও তাদের স্বামীদেরকে চিহ্নিত করে গ্রেফতার করে যথাযথ আইনি পদক্ষেপ গ্রহণ করার জোর দাবি স্থানীয় সুশীল সমাজের মানুষের।

Please Share This Post in Your Social Media

More News Of This Category