1. mahadihasaninc@gmail.com : admin :
  2. hossenmuktar26@gmail.com : Muktar hammed : Muktar hammed
একজন আদর্শ মেম্বার চরবাগডাংগা ইউনিয়ন জুয়েল রানা - dailybanglarpotro
  • June 21, 2024, 9:11 pm

শিরোনামঃ
গাজীপুরে নারী সাংবাদিকের উপর হামলা, প্রতিবাদে মানববন্ধন করতোয়া নদী থেকে হাত-পা বাঁধা অবস্থায় এক নারীর মরদেহ উদ্ধার কালীগঞ্জে ঈদ পুনঃর্মিলনী অনুষ্ঠানে মেহের আফরোজ চুমকি এমপি শেখ হাসিনার আদর্শের সৈনিক হিসেবে দেশের তরে কাজ করবো উত্তর আমিরাত ও দুবাই কনস্যুলেটে নজরুল ও রবীন্দ্র জয়ন্তী পালন কালীগঞ্জে যৌতুকের দাবীতে গৃহবধুকে নির্যাতন রাজশাহীতে জোরপূর্বক ফসলি জমিতে পুকুর খননের অভিযোগ দূর্গাপুরে ঈদ পরবর্তী শুভেচ্ছা বিনিময় করলেন প্রতিমন্ত্রী আব্দুল ওয়াদুদ দারা রাসিক মেয়রের সাথে মহানগর যুবলীগের নবনির্বাচিত নেতৃবৃন্দের সৌজন্য সাক্ষাৎ দূর্গাপুরে চেক ও নগদ অর্থ বিতরণ করলেন প্রতিমন্ত্রী আব্দুল ওয়াদুদ দারা রাজশাহী নগরীতে ৪ নারীসহ ৮ ভুয়া সাংবাদিক গ্রেফতার

একজন আদর্শ মেম্বার চরবাগডাংগা ইউনিয়ন জুয়েল রানা

  • Update Time : Thursday, December 14, 2023
  • 271 Time View

এসএম রুবেল, চাঁপাইনবাবগঞ্জ: আজকাল ভালো প্রার্থী পাওয়া দুষ্কর। অথচ জনগণ চায় সৎ,শিক্ষিত,চরিত্রবান, আদর্শবাদী ও সমাজসেবার মানসিকতাসম্পন্ন যোগ্য মানুষ জনপ্রতিনিধি হিসেবে নির্বাচিত হোক। বস্তুত যারা সুখে-দুঃখে জনগণের পাশে থাকবে, কেবল তারাই জনপ্রতিনিধি হওয়ার অধিকারী।

শিক্ষা জাতির মেরুদণ্ড। শিক্ষিত জাতি গড়ার জন্য সমাজের বিভিন্ন ক্ষেত্রের প্রতিনিধিদের শিক্ষিত হওয়া দরকার। কিন্তু দুঃখের বিষয়,আমাদের দেশে নির্বাচনে পেশিশক্তি,অর্থের প্রভাব ইত্যাদি কারণে অশিক্ষিত জনপ্রতিনিধিরা এক একটি নির্বাচনী এলাকার দায়িত্ব নেন। এদের অনেকেই অজ্ঞতার কারণে কোথায় প্রকল্প বা কোথা থেকে উন্নয়নের জন্য বরাদ্দ আনতে হয়-তা ঠিকমতো বুঝতে পারেন না। ফলে ওই এলাকা উন্নয়নবঞ্চিত হয়।

বাংলাদেশ একটি উন্নয়নশীল দেশ। উন্নয়নশীল দেশের জনপ্রতিনিধিদের শিক্ষিত হওয়া আবশ্যক। দুঃখজনক হলেও সত্য,আমাদের দেশে জনপ্রতিনিধি হওয়ার জন্য নির্বাচন কমিশনের অনেক শর্ত থাকলেও প্রার্থীদের শিক্ষাগত যোগ্যতা নিয়ে কোনো শর্ত আছে কিনা,তা আমার জানা নেই। একটি শিক্ষিত জাতি গঠন করার জন্য,দেশকে উন্নত থেকে উন্নততর করার জন্য জনপ্রতিনিধিদের শিক্ষিত হওয়া বাঞ্ছনীয়।

কেমন জনপ্রতিনিধি চাই? তবে
সফল জনপ্রতিনিধি হওয়া একটা স্বপ্ন। কিন্তু স্বপ্নের পথে পা বাড়ালেই একের পর এক আসতে থাকে প্রতিবন্ধকতা। যে ব্যক্তি এসব প্রতিবন্ধকতা ডিঙিয়ে এগিয়ে যাবেন তিনিই হবেন সফল। আজ এমনই একজন সমাজ সেবকের কথা জানাচ্ছি- যিনি অনেক বাধা ও প্রতিবন্ধকতা ডিঙিয়ে একজন সফল ব্যক্তি (মেম্বার) হিসেবে প্রতিষ্ঠিত।তিনি হলেন,চাঁপাইনবাবগঞ্জ সদর উপজেলার চরবাগডাঙ্গা ইউনিয়ন পরিষদের ০৩ নম্বর ওয়ার্ডের ইউপি সদস্য জুয়েল রানা।তিনি সাধারণ মানুষের প্রত্যাশা পূরণে নিরন্তর কাজ করে যাচ্ছেন। তারপরও মানুষের প্রত্যাশা থাকে। তিনি তার পরিশ্রম,সাহস,ইচ্ছাশক্তি,একাগ্রতা আর প্রতিভার সমন্বয়ে সাধারণ মানুষের ভাগ্য উন্নয়নের জন্য,স্থানীয় সরকারের উন্নয়ন কর্মকাণ্ড সঠিক ও সুচারুভাবে বাস্তবায়নের জন্য,সর্বোপরি শেখ হাসিনার ডিজিটাল বাংলাদেশের যে স্বপ্ন রয়েছে সেই স্বপ্ন বাস্তবায়নের জন্য তিনি তার লোকজন চাঁপাইনবাবগঞ্জের প্রতিটি নির্বাচনে নৌকা প্রতীকের জয়লাভের জন্য অক্লান্ত পরিশ্রম করে যাচ্ছেন।জুয়েল রানা কাজে সফলও হয়েছেন।

তবে তিনি সকলের সহযোগিতা পাচ্ছেন এবং সহযোগিতার আশাও ব্যক্ত করে চলেছেন। মেম্বার ও রাজনৈতিক ব্যক্তি হিসেবে সফলতা পাওয়ায় তিনি সদর উপজেলায় জেলার সর্বত্র সম্মানিত হচ্ছেন। তারুণ্যের প্রতীক এ ব্যক্তি তার বয়স ও অভিজ্ঞতা দুটিকেই হার মানিয়েছেন। তার কর্মকাণ্ডে মনে হয় তিনি নবীন নয়। তিনি অনেক প্রবীণ। তার অভিজ্ঞতা রয়েছে অনেক। এ সকল সফল মানুষের পেছনে আছে কিছু গল্প,তা অনেকটা রূপকথার মতো। আর সেসব গল্প থেকে মানুষ খুঁজে নেয় স্বপ্ন দেখার সম্বল,এগিয়ে যাওয়ার জন্য নতুন প্রেরণা। দায়িত্ব নেওয়ার পর থেকেই উল্লেখযোগ্য উন্নয়নে অগ্রণী ভূমিকা রেখে সাধারণ মানুষের আস্থা অর্জনে সক্ষম হয়েছেন। এলাকার হতদরিদ্র মানুষের উন্নয়নে তাঁর নিরন্তর প্রয়াস সব মহলেই প্রশংসা কুঁড়িয়েছে। রাস্তাঘাটের উন্নয়ন, শিক্ষা ও স্বাস্থ্য সেবায় বিশেষ অবদান, সামাজিক উন্নয়নসহ বিভিন্ন প্রকল্পের বাস্তবায়নে দায়িত্বশীলতার পরিচয় দিয়ে এলাকায় নিজের মুখ উজ্জ্বল করেছেন। তার সাথে দলের ভাবমূর্তির উন্নয়ন হয়েছে। অসংখ্য মসজিদ,মাদ্রাসা,স্কুল-কলেজ ও বিভিন্ন সামাজিক সাংস্কৃতিক সংগঠণের অন্যতম পৃষ্ঠপোষক সমাজসেবী মেম্বার জুয়েল রানা।

ব্যক্তি জীবনে তিনি অত্যন্ত নম্র,ভদ্র, সদাহাস্যোজ্জ্বল ও সাদা মনের মানুষ। তার মাঝে কোনো অহংকার নেই। নিরহংকারী এই মানুষটি দলমত নির্বিশেষে আজ সকলের কাছে প্রিয়। কাজ করছেন নৌকার জন্য। সর্বোপরি কাজ করছেন সাধারণ মানুষের কল্যাণের জন্য। বয়সে তরুণ হলেও তিনি মনোবল হারাননি। এই সফল মানুষটি দলীয় নেতাকর্মী থেকে শুরু করে প্রতিটি মানুষের বিপদআপদে ছুটে যান। এলাকায় তিনি একজন সাদা মনের উদার মানসিকতার ও বিশেষ করে দানশীল মানুষ হিসেবে ইতিমধ্যে পরিচিতি লাভ করেছেন। এলাকার সাধারণ মানুষের মতে,আমরা নেতা বা মেম্বার বুঝি না। জুয়েল মেম্বার একজন ভালো মানুষ। তিনি একজন কর্মঠ ব্যক্তি। তিনি মেম্বার পদে থাকলে আমাদের তথা এলাকার উপকার হবে। আমাদের দুঃখ-দুর্দশায় তাকে সহজেই পাশে পাওয়া যায়। ইতোমধ্যে তিনি সমাজের সকল মতাদর্শের মানুষের কাছে একজন দক্ষ, পরিশ্রমী ও মেধাবী সমাজ সেবক এবং উদীয়মান নেতা হিসাবে ব্যাপক প্রিয় পরিচিতি লাভ করেছেন।

নির্বাচনকালীন সময়ে সাধারণ জনগনকে দেওয়া প্রতিশ্রুতি বাস্তবায়ন করে একজন সফল ও জনপ্রিয় ইউপি মেম্বার হিসেবে সবশ্রেণির মানুষের অন্তরে স্থান করে নিয়েছেন চরবাগডাংগা ইউনিয়ন ০৩ নং ওয়ার্ড়ের জনপ্রিয় মেম্বার জুয়েল রানা তিনি ঔ ইউনিয়নের মেম্বার নির্বাচিত হওয়ার পর থেকে তার প্রিয় ওয়ার্ড়কে উন্নয়নের আওতায় এনে ব্যাপক উন্নয়ন মূলক কর্মসূচি হাতে নিয়েছেন। দৃশ্যপট পরিবর্তন করেছেন ০৩ নং ওয়ার্ডের। এলাকার গরীব দুঃখী মানুষের পাশে থেকে তিনি সব সময় সাহায্যের হাত বাড়িয়ে দিয়েছেন।সর্বোপরি গরীব মেহনতী মানুষের প্রকৃত জনদরদী হিসেবে তিনি এলাকায় ব্যাপক পরিচিত ও জনপ্রিয়তা লাভ করেছেন। খোঁজ নিয়ে জানা গেছে, চরবাগডাংগা ইউনিয়ন ০৩ নং ওয়ার্ডের মেম্বার হিসেবে নির্বাচিত হওয়ার পর থেকে এলাকার উন্নয়নে সৃজনশীল পরিকল্পনা গ্রহণ করেছেন। গৃহিত পরিকল্পনার আলোকে তিনি একের পর এক উন্নয়ন কর্মকান্ড বাস্তবায়ন সম্পন্ন করেছেন। এলাকা পরিদর্শনকালে ঔ ইউনিয়নের ০৩ নং ওয়ার্ডবাসী এ প্রতিবেদককে বলেন,চরবাগডাংগা ইউনিয়নের বর্তমান জনপ্রিয় মেম্বার জুয়েল রানা সাধারণ পরিবারের সন্তান ছিলেন। যার কারণে খুব সহজে তিনি মানুষের মনের কথা বুঝতে পারেন। যার ফলে এলাকাবাসী তাকে ০৩ নং ওয়ার্ডে বিপুল ভোটে মেম্বার নির্বাচিত করেছেন। নির্বাচিত হয়ে জুয়েল রানা এলাকার উন্নয়ন করে যাচ্ছেন একাধারে।
সামাজিক সচেতনতা এবং মানবিক সেবার অনন্য উদ্যোগ তাকে একজন মানবদরদী ও মহতী মানুষের উচ্চতায় অধিষ্ঠিত করেছে। তিনি এলাকার দরিদ্র জনগোষ্টির উন্নয়নে বিভিন্ন উন্নয়নমূলক কর্মসূচি বাস্তবায়ন করেছেন এবং বিভিন্ন উন্নয়ন প্রকল্প হাতে নিয়েছেন। তিনি এ পর্যন্ত ইউনিয়নের বিভিন্ন রাস্তার উন্নয়নসহ স্কুল, মাদ্রাসা,কবরস্থান,মসজিদ,ঈদগাঁমাঠ সংস্কার করে গরীব দুঃখী মানুষের মাঝে বয়স্কভাতা,বিধবাভাতা সঠিকভাবে বিতরণ করেছেন এবং বিভিন্ন উন্নয়ন প্রকল্প সঠিকভাবে বাস্তবায়ন করে গ্রাম্য সালিসের মাধ্যমে ইউনিয়নের বিভিন্ন সমস্যার সমাধান করে যাচ্ছেন।

ষড়যন্ত্রের শামিল ঔ এলাকায় তিনি নির্বাচিত হওয়ার পর পর থেকেই শুরু করে মাদকের বিরুদ্ধে জিরো অভিযান,তখন থেকেই তার পিছনে লেগে যায় একটি মাদক সিন্ডিকেটের কুচক্রী মহল,তাকে ফাঁসাতে একের পর এক চালিয়ে যায় ষড়যন্ত্র হয়ে যায় সবগুলোই ব্যর্থ,কিছু অসাধু মাদকদ্রব্য নিয়ন্ত্রণ অধিদপ্তরের সদস্যকে কোটি টাকার বিনিময়ে কন্টাক করে তাকে তার বাড়িতে মাদক সাজিয়ে মামলা দিয়ে কারাগারে পাঠান,ইউপি সদস্য জুয়েল রানার বিরুদ্ধে করা মিথ্যা-বানোয়ার মামলায় কয়েকদিনের মধ্যেই জামিন বের হওয়ায় সময় কারাগারের গেইটে তাকে ফুলের মালা দিয়ে বরণ করেন চরবাগডাঙ্গা ইউনিয়নের সর্বস্তরের হাজারো মানুষ।

এছাড়াও তিনি নির্বাচিত হওয়ার পর নিয়মিত অফিস করেছেন এবং স্থানীয় প্রশাসনের সার্বিক তত্ত্বাবধানে প্রতিটি উন্নয়নমূলক কাজ অতি দক্ষতার সাথে সফলভাবে করেছেন যা এখনো চলমান আছে। আগামী দিনে চরবাগডাংগা ইউপি মেম্বার জুয়েল রানা সততা ও কর্মদক্ষতার সাথে ইউনিয়নে উন্নয়নের অগ্রযাত্রায় অগ্রণী ভূমিকা পালন করে ০৩ নং ওয়ার্ডকে আধুনিক মডেল হিসেবে গড়ে তুলবেন এমনটাই প্রত্যাশা ওয়ার্ড বাসীর সহ সকলের। মেম্বার জুয়েল রানা বলেন,আমি আজিবন সাধারণ মানুষের সাথে মাটির মানুষ হয়ে বেঁচে থাকতে চাই।

তাদের দুঃখ আমার দুঃখ,তাদের সুখ আমার সুখ। ০৩ নং ওয়ার্ডবাসী আমাকে বেশি ভালবাসে এটার বড় প্রমাণ গত ইউপি নির্বাচনে আমাকে তারা বিপুল ভোটে জয়যুক্ত করেছেন। আমি আজীবন আমার ওয়ার্ডবাসীর প্রতি চিরঋণী হয়ে থাকব। আমি সারা জীবন তাদের জনপ্রতিনিধি হয়ে নয় তাদের সেবক হয়ে বাকি জীবন আমার প্রাণপ্রিয় ওয়ার্ডবাসীর সাথে থাকতে চাই।।

Please Share This Post in Your Social Media

More News Of This Category