1. mahadihasaninc@gmail.com : admin :
  2. hossenmuktar26@gmail.com : Muktar hammed : Muktar hammed
আমের রাজধানীতে গাছে-গাছে মৌ-মৌ ঘ্রান ভরে উঠেছে মুকুল পাখিদের কোলহর - dailybanglarpotro
  • June 22, 2024, 9:30 pm

শিরোনামঃ
গৌরবময় পথচলার ৭৫ বছরে বাংলাদেশ আওয়ামী লীগ রাজশাহীতে ক্রিকেট খেলায়কে কেন্দ্র করে মাথায় হাতুড়ির আঘাত; মৃত্যু শয্যায় যুবক রাজশাহীর দুর্গাপুরে পুকুর লিজ কারীর বিরুদ্ধে ৪০০টি আমগাছ কাটার অভিযোগ জন্মদিনে শুভেচ্ছা ও ভালোবাসায় সিক্ত হলেন শিক্ষানুরাগী, সমাজ সেবক কবির আকন্দ হজ্ব করতে গিয়ে দুবাই বাংলাদেশ কমিউনিটি নেতা জহিরুল ইসলামের ইন্তেকাল গাজীপুরে নারী সাংবাদিকের উপর হামলা, প্রতিবাদে মানববন্ধন করতোয়া নদী থেকে হাত-পা বাঁধা অবস্থায় এক নারীর মরদেহ উদ্ধার কালীগঞ্জে ঈদ পুনঃর্মিলনী অনুষ্ঠানে মেহের আফরোজ চুমকি এমপি শেখ হাসিনার আদর্শের সৈনিক হিসেবে দেশের তরে কাজ করবো উত্তর আমিরাত ও দুবাই কনস্যুলেটে নজরুল ও রবীন্দ্র জয়ন্তী পালন কালীগঞ্জে যৌতুকের দাবীতে গৃহবধুকে নির্যাতন

আমের রাজধানীতে গাছে-গাছে মৌ-মৌ ঘ্রান ভরে উঠেছে মুকুল পাখিদের কোলহর

  • Update Time : Wednesday, March 15, 2023
  • 270 Time View

এসএম রুবেল, চাঁপাইনবাবগঞ্জ প্রতিনিধি: আমের রাজধানী চাঁপাইনবাবগঞ্জে আমের গাছে গাছে মুকুল আসতে শুরু করেছে। ভরে উঠেছে প্রতিটি গাছপালা মৌ-মৌ ঘ্রানে সুগন্ধে ছড়িয়ে পড়েছে আমের রাজধানী চাঁপাইনবাবগঞ্জ জেলা আকাশে বাতাসে পাখিদের কলাহার এ জানো জমকলোর দৃশ্য,চাঁপাইনবাবগঞ্জ জেলা যদিও গত বছর এই সময়ে আমের মকুল দিয়ে গাছে গাছে বড়ে যেত। আবহাওয়া পরিবর্তনের জন্য গাছে দেরিতে মুকুল আসছে। তাই আমগাছে মার্চ মাস পর্যন্ত মুকুল আসবে। আবহাওয়া অনুকূল থাকায় হতাশ হবার কোনও কারণ নেই বলে জানান আঞ্চলিক উদ্যানতত্ত্ব গবেষণা কেন্দ্রের মূখ্য বৈজ্ঞানিক কর্মকর্তা মো.মোখলেসুর রহমান।

চাঁপাইনবাবগঞ্জে আমগাছে মুকুল আসার সময়কাল ১৫ জানুয়ারি থেকে ১৫ ফেব্রুয়ারি পর্যন্ত। তবে এখন পর্যন্ত ৭০ ভাগ গাছ মুকুলিত হয়েছে। গতবার অফ ইয়ার হওয়ায় কিছুটা কম উৎপাদন হয়েছিল কিন্তু এবার অনইয়ার হওয়ায় ভালো উৎপাদন হবে। আশা করা হচ্ছে শতভাগ গাছ মুকুলিত হবে এবং এবার আবহাওয়া অনুকূলে থাকায় উৎপাদনও ভালো হবে বলে বলছেন কৃষি গবেষকরা

সরজমিনে খোজ আরও জানা যায়,এবার অনইয়ার হওয়ায় জেলায় ৩ লাখ ৭৫ হাজার মেট্রিক টন আম উৎপাদনের লক্ষ্যমাত্রা নির্ধারণ করা হয়েছে। গতবছর অফইয়ার হওয়ায় আমের আশানুরুপ ফলন হয়েছিল। কিন্তু এবারও আমের উৎপাদন ভালো হবে বলে আশা করছেন বানি ও আমচাষিরা। অতীত অভিজ্ঞতায় দেখা যায় এক বছর আমের উৎপাদন ভালো হলে পরের বছর খারাপ হয়।

আমচাষী এরফান আলি বলেন, আমের ভালো ফলন হবার জন্য এখন থেকে বাগান পরিচর্যার কাজ পুরোদমে চালিয়ে যাচ্ছি। আবহাওয়া অনুকূল থাকায় আমের বাম্পার ফলন হবে বলে আশা করছি। তুলনামূলকভাবে এবার বড় আমগাছের চেয়ে ছোট আমগাছে বেশি মুকুল এসেছে মুকুল ধরে রাখতে বাঁশ দিয়ে ঠেক দিতে হচ্ছে।

আরেক আম চাষি আবদুল রহিম বলেন,আম গাছে মুকুল আসতে শুরু করেছে। পুরোদমে মুকুলে ছেয়ে গেছে তাই এসব গাছের বাড়তি যত্ন প্রয়োজন। এছাড়াও বাগানের আগাছা পরিষ্কারসহ পোকা দমনে স্প্রে ব্যবহার করা হচ্ছে। ছোট-বড় আম বাগান পরিচর্যায় সময় ব্যয় করতে হয় আমাদের।

রাজশাহী ফল গবেষণা ইনস্টিটিউটের বৈজ্ঞানিক কর্মকর্তা ড. মো.আব্দুল আলিম বলেন,এবার গরম আগেই চলে এসেছে। আম গাছে মুকুল আসা শুরু করেছে। কিছু কিছু গাছে মুকুল এসেছেও। আবার কিছু কিছু গাছে মাথা ফাটছে। তবে সেগুলো মুকুল হবে না নতুন পাতা হবে সেটা বুঝতে আরও ১৫ দিন সময় লাগবে। এই ফাটা জায়গা থেকেই মুকুল বা নতুন পাতা বের হবে এছাড়াও মুকুলের গেজ ধরে রাখতে আকাশের পানির কোন বিকল্প নেই।

Please Share This Post in Your Social Media

More News Of This Category